নাভিশ্বাস তোলা গরমে মধুর শরবত

অসহনীয় গরমে ঠান্ডা পানীয় ছাড়া কাটানো একটু কষ্টকরই বটে। সারাদিনের ক্লান্তি ভুলতে অথবা সকালে আড়মোড়া ভাঙা ঘুম শেষে নিজেকে চাঙ্গা করে নিতে শরবতের কোন বিকল্প নেই। আর এই  নাভিশ্বাস তোলা গরমে শরবত তো চাই-ই চাই। 
তবে শরবতে ব্যবহার করা চিনি বরাবরই স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর। যা পরবর্তীতে স্বস্তির চাইতে অস্বস্তি  বয়ে আনে আমাদের স্বাস্থ্যের জন্য। গবেষণা করে দেখা গিয়েছে, দৈনিক ১৫০ ক্যালোরি চিনি খাবারে গ্রহণ করলে ডায়াবেটিসে আক্রান্ত হবার ঝুঁকি বেড়ে যায় ১.১ শতাংশ। 
এছাড়া চিনি মাত্রাতিরিক্ত খাওয়ার ফলে আমাদের ভিন্ন ধরণের শারীরিক সমস্যার আশংকা থাকে। হ্রদরোগের ঝুঁকি বেড়ে যাওয়া থেকে শুরু করে ত্বকের বলিরেখা হওয়ার পেছনে দায়ী এই চিনি। 
এক্ষেত্রে, মধু হতে পারে চিনির শ্রেষ্ঠ বিকল্প। মধু স্বাদে মিষ্টি কিন্তু তবুও আমাদের শরীরের জন্য বেশ স্বাস্থ্যকর। মধুর শরবত পান করলে যেমন ভাবে ক্ষণিকের মধ্যে তৃপ্তি পাওয়া যায় তেমন ভাবে শরীরের উপকারেও এর কমতি নেই।
তাহলে চিনি ছাড়া আমাদের শরবত খাওয়ার বিকল্প কি হতে পারে? – বুনিয়াদী মধু
ক্লান্তিকর গরমে নিজেকে চটপটে রাখার জন্য মধুর শরবত হতে পারে আদর্শ একটি সমাধান। 
মধুর শরবত 
এক গ্লাস পানিতে ২/৩ চা চামচ মধু মিশিয়ে নিমিষেই তৈরি করে ফেলতে পারেন মধুর শরবত। ঠান্ডার সমস্যা না থাকলে এই মধুর শরবতে কয়েকটা বরফের টুকরা ব্যবহার করে পান করলে গরমে আরাম পাবেন। 
আবার মধু দিয়ে পেঁপে মধুর লাচ্ছি, মধু ও লেবুর শরবত, মধু কলার মিল্কশেকের মতন মজার মজার পানীয় করে ফেলা যায় চটজলদি। তাই, এই কড়া রোদ ও অস্বস্তিকর গরমে শীতল থাকার জন্য সহজলভ্য উপায়ে বানিয়ে ফেলুন মধু দিয়ে হরেক রকমের শরবত।

 

Please follow and like us: